বিদেশি স্ত্রী-সন্তান ফেলে পালিয়েছে আইএস জঙ্গিরা

তাল আফারের দখল হারানোর পর সেখানে প্রায় ১৪০০ বিদেশি স্ত্রী-সন্তান ফেলে পালিয়েছে ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিরা। তারা এখন ইরাকি সরকারের হেফাজতে রয়েছে।

ইরাকি কর্মকর্তাদের মতে, ফেলে যাওয়া এই নারীদের বেশিরভাগই রাশিয়া, তুরস্ক এবং মধ্য এশিয়ার। এ ছাড়া তাদের মধ্যে অনেকে ইউরোপীয় বিভিন্ন দেশেরও রয়েছেন।

বর্তমানে মূলত তাদের পরিচয় ও জাতীয়তা শনাক্তের কাজ করছেন ইরাকি কর্মকর্তরা। এই নারীদের অনেকের কাছেই তাদের মূল পরিচয়পত্র নেই।

বর্তমানে তাদের একটি বিশেশ ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। ওই ক্যাম্প ছাড়ার কোনো অনুমতি তাদের নেই।

৩১ আগস্ট ইরাকের প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল-আবাদি তাল আফার শহর ও গোটা নিনভেহ প্রদেশ আইএসের হাত থেকে মুক্ত হয়েছে বলে ঘোষণা দেন।

আইএসে জঙ্গিদের ফেলে যাওয়া স্ত্রীদের তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগও শুরু করেছে ইরাক।

ফরাসী ভাষায় কথা বলতে পারেন এক নারী বলছিলেন তিনি ফ্রান্সে ফিরে যেতে চান, তবে কিভাবে সেটা সম্ভব সেটা তিনি জানেন না। তিনি প্যারিস থেকে এসেছেন বলেও দাবি করেছেন।

স্বামীর অবস্থান সম্পর্কে তার কোনো ধারণা নেই বলেও দাবি করছেন ওই নারী। ওই নারী বলছেন, তার স্বামীই তাকে জঙ্গিদের কাছে এনেছেন।

অনেক নারী তাদের স্বামীদের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগও করেছেন।

আরেক নারী জানিয়েছেন, তিন মাসে আগে বাচ্চা হওয়ার পর তার স্বামী তাকে তুরস্কে ছুটি কাটানোর কথা বলে এখানে নিয়ে চলে আসেন। তিনি বলেন, আমার মাও জানেন না আমি কোথায় আছি।

তাল আফার আইএসের দখলে থাকা ইরাকের শেষ শহর। সিরীয় সীমান্ত থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে এ শহরের অবস্থান।

সূত্র : প্রেস টিভি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *