নোবেল কে তিরস্কার করে কি বললেন খামেনি দেখে নিন ক্লিক করে।

মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে মুসলিম রোহিঙ্গাদের হত্যাকাণ্ড ও নির্যাতনের মধ্য দিয়ে নোবেল শান্তি পুরস্কারের মৃত্যু ঘটেছে বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। গতকাল মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যম এ খবর জানিয়েছে।

চোখের সামনে এই সহিংসতা দেখে কোনো রকম ভূমিকা না নেওয়ায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চিকে ‘নিষ্ঠুর নারী’ বলেও উল্লেখ করেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা।

আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেন, ‘মিয়ানমারের চলমান সংকটকে বৌদ্ধ ও মুসলমানের মধ্যে চলমান ধর্মীয় দ্বন্দ্ব বলা যাবে না।’ মিয়ানমারের বিরুদ্ধে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) দেশগুলোকে ঐক্যবদ্ধভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আরো বলেন, ‘মিয়ানমারের ক্ষমতাধর অং সান সু চি ক্ষমতায় আসার পর রোহিঙ্গা মুসলমানদের অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। বরং তাঁদের অবস্থার আরো অবনতি হয়েছে। রোহিঙ্গাদের সঙ্গে তাঁর আচরণের ফলে নোবেল শান্তি পুরস্কারের মৃত্যু ঘটেছে।

গত ২৪ আগস্ট জঙ্গিরা রাখাইন রাজ্যের কয়েকটি থানা ও সেনাক্যাম্পে হামলা চালায় এবং ১২ জন নিরাপত্তাকর্মীকে হত্যা করে। এর পর থেকেই রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর সহিংসতা চালানো হয়। সহিংসতার মধ্যে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে চার লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা মানুষ।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের প্রধান জাইদ রাদ আল হুসাইন বলেছেন, মিয়ানমারে নিরাপত্তার নামে চালানো অভিযানে রোহিঙ্গা মুসলমানদের লক্ষ্য বানানো হয়েছে। দেশটির এই অভিযানকে ‘জাতিগত নিধনের’ একটি টেক্সট বুক উদাহরণ বলে মনে করেছেন আল হুসাইন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com